সৌদি আরব বাংলাদেশ সহ এশিয়ার অন্যান্য দেশ থেকে গৃহস্থালী কাজের লোক নিয়োগের খরচ কমানোর উদ্যোগ গ্রহন করেছে। সৌদি আরবের মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়ের এক উর্দ্ধতন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে স্থানীয় পত্রিকা আল একতিসাদিয়া এই বিষয়ে রিপোর্ট করেছে।
করোনা ভাইরাসের প্রাদূর্ভাবের পরে বিমানের টিকেটরে দাম বৃদ্ধি এবং কয়েকবার টেস্ট এবং কোয়ারেন্টাইনের বাদ্যবাধকতার জন্য সৌদি আরবে শ্রমিক নিয়োগের খরচ আনেক বেড়ে গেছে। বাংলাদেশ ব্যুরো অফ ম্যানপাওয়ার এমপ্লয়মেন্ট এন্ড ট্রেনিং এর রিপোর্ট মতে সৌদি আরব থেকে বিগত ২০২০ অর্থবছরে প্রায় ৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমান বৈদেশিক মূদ্রা পাঠিয়েছে বাংলাদেশি শ্রমিকেরা।
সৌদি আরব সম্প্রতি তাদের ৭০ বছরের কফিল প্রথা ভেঙ্গে শ্রমবাজার বিদেশী শ্রমকিদের জন্য আরো আকর্ষনীয় করতে আধুনিক ব্যবস্থা চালু করেছে। সৌদি আবর তাদের বাজারে প্র্রায় এক কোটি শ্রমিক গ্রহন করবে।
এই বছর বাংলাদেশ থেকে প্রায় ১.৫ লাখ ম্রমিক বিদেশে গেছে এর মধ্যে প্রায় এক লাখ শ্রমিক কেবল সৌদি আরবে গেছে। সৌদি আরব তাদের সব ধরনের নিয়োগে তথ্য প্রযুক্তির পরিবর্তে রোবটিকস প্রযুক্তি চালু করছে ফলে বাংলাদেশের ম্রমিকদের জন্য সৌদি বাজার সংকুচিত হওয়ার আশংখা প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রদুত। সৌদি আরবে কর্মরত পরিচ্ছন্নতা কমীর ৭০/৮০ ভাগ বাংলাদেশি যারা আধুনকি প্রযুক্তি চালু করলে কাজ হারানোর অশঙ্খা আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here